1. send2titas@gmail.com : admincn :
  2. editorctvnews@gmail.com : Channel News Admin : Channel News Admin
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
বসুন্ধরা গ্রুপে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পুলিশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদক পেলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার শাখাওয়াত হোসেন অগ্নিঝড়া মার্চে নানা রাষ্ট্রীয় কর্মসূচী পালনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রস্তুতি সভা । ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে সারাদেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত রাসুল (সাঃ) শবে বরাতে যেসব আমল করেছেন সারা দেশে পবিত্র শবে বরাত পালিত হচ্ছে আজ পবিত্র শবে বরাত দিনাজপুরে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় গ্রাম আদালতে মতবিনিময় সভা বড় শিক্ষাবিদদের সংকীর্ণ মানসিকতার কারণে  পঞ্চম ও ৮ম শ্রেণীর পরীক্ষা উঠিয়ে দেয়া হয়েছে-গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রান্সফরমার চুরি করতে এসে ৪ চোর আটক।

রাত ৩টায় সকালের নাশতা !

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ২২ ১০ জন পড়েছে

চ্যানেল নিউজ, ঢাকা : উত্তর-পূর্ব ভারতের অরুণাচল প্রদেশ। এই রাজ্যের বেদং উপত্যকার ডং গ্রামকে বলা হয় ভারতের প্রথম গ্রাম। কেননা, এখানে পুরো ভারতবর্ষের সূর্যের আলো প্রথম পরে। জানলে অবাক হবেন, এই এলাকার বাসিন্দারা সকালের নাশতা খান রাত তিনটায়। দুপুরের খাবার খান সকাল ১০টায়। আর রাতের খাবার খান বেলা ৪টায়।

সূর্যের প্রথম রশ্মি পৃথিবী স্পর্শ করে রাত ৩টায়

১৯৯৯ সালে, ডং গ্রাম ভারতের উদীয়মান সূর্যের ভূমির মর্যাদা পায়। এখানে সূর্যের প্রথম রশ্মি পৃথিবী স্পর্শ করে ভোর রাত ৩ টায়। শুনতে যেমন রোমাঞ্চকর বলে মনে হচ্ছে, সূর্যোদয়ের সেই দৃশ্য দেখাও কিন্তু দারুণ রোমাঞ্চকর। নিজের চোখে সে দৃশ্য না দেখলে বুঝি জীবন বৃথা।

রাতের খাবারের প্রস্তুতি শুরু হয় বেলা ৪টা থেকে

জেনে অবাক হবেন যে, নতুন বছরে অনেক পর্যটকই সূর্যোদয়ের এই গ্রামে কাটাতে পছন্দ করেন। প্রথম সূর্যোদয় দেখলে সারাটা বছর ভালো যাবে বলে অনেকের বিশ্বাস। আবার অনেকেই বছরের প্রথম সূর্যোদয় দেখে জীবনী শক্তি অর্জন করতে চান। এই গ্রামে যেমন সকাল সকাল সূর্য ওঠে, তেমনই সকাল সকাল রাত হয়। মজার কথা হল, বিকেল ৪টা বাজতে না বাজতেই সে গ্রামের বাসিন্দারা রাতের খাবারের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন। কারণ এখানে ৪ টায় অন্ধকার হতে শুরু করে। ভোর ৩টায় এখানে সূর্যের লাল আভা দেখা যায় বলে সেটাই তাদের কাছে ভোরবেলা। পুরো দেশ যখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন, তখন এখানকার মানুষ বিছানা ছেড়ে উঠে কাজ শুরু করে দেন। এপ্রিল থেকে অক্টোবরের মধ্যে এই স্থান ভ্রমণের সেরা সময়।

১২ ঘণ্টা দিন

ডং গ্রাম অর্থাৎ বেদাং উপত্যকায় দিন প্রায় ১২ ঘণ্টা। বিকেল ৪ টায় যখন আমরা চা খাওয়ার প্রস্তুতি নিই, তখন এখানকার লোকজন রাতের খাবার খেয়ে ঘুমানোর প্রস্তুতি নিয়ে থাকেন। এই গ্রামটি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১২৪০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। লোহিত এবং সতী এই দুটি এখানকার প্রধান নদী। এই গ্রামের লোকসংখ্যা মোট মাত্র ৩৫ জন।

আগে সূর্যের প্রথম রশ্মি এখানে পড়ত

১৯৯৯ সালের আগে লোকজন বিশ্বাস করতেন যে, সূর্যের প্রথম রশ্মি নাকি আন্দামানের কুচ্ছল দ্বীপে পড়ে। কিন্তু পরে জানা যায়, সূর্যোদয়ের গ্রামটি আসলে অরুণাচল প্রদেশে অবস্থিত, ডং গ্রাম। এই তথ্য প্রকাশের পর থেকেই এখানে পর্যটকদের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

ডং গ্রামে দেখার জায়গা

প্রাকৃতিক উষ্ণ প্রস্রবণ।

কীভাবে ডং গ্রামে বা বেদং উপত্যকায় যাবেন

বিমানে: কেউ যদি ফ্লাইটে যেতে চান তাহলে তাকে ডিব্রুগড় বিমানবন্দরে পৌঁছাতে হবে। সেখান থেকে ডং ভ্যালি ৩৪৯ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। বাস বা ট্যাক্সি ক্যাবে করে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেন।

ট্রেনে: ডং গ্রামের নিকটবর্তী রেলওয়ে স্টেশনটি হল তিনসুকিয়া রেলওয়ে স্টেশন। সেখান থেকে ১২০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ডং ভ্যালি। এখান থেকে আপনি তেজু পৌঁছানোর জন্য একটি ট্যাক্সি ভাড়া করতে পারেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করতে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2018 Channel News
Design & Developed By: Gausul Azam IT