1. send2titas@gmail.com : admincn :
  2. editorctvnews@gmail.com : Channel News Admin : Channel News Admin
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৪:০৪ পূর্বাহ্ন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপ-নির্বাচনে অনিয়মের তদন্ত প্রতিবেদন দ্রুত দাখিল হবে

  • প্রকাশিত : রবিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৩৪ ১০ জন পড়েছে
ফাইল ছবি
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: শফিকুল হক শাকিল : গত ৫ নভেম্বর  অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২-(সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচন নিয়ে উঠা অনিয়মের কিছু সত্যতা পেয়েছে তদন্ত  কমিটি। রবিবারের মধ্যেই  নির্বাচন কমিশনের কাছে তদন্ত  প্রতিবেদন জমা দেয়ার কথা রয়েছে। তবে এ ব্যাপার মুখ খুললেন আটজন তদন্ত কমিটির সদস্য ।
গত ৫ নভেম্বর রবিবার অনুষ্ঠিত হয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২-(সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনের উপ-নির্বাচন। নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত  প্রার্থী ও শিক্ষক নেতা অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান আলম সাজু নৌকা প্রতীক ৬৬ হাজার ৩১৪ ভোট পেয়ে বে-সরকারিভাবে বিজয়ী হন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বদ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থী  ও এই আসনের দুইবারের সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা (কলার ছড়ি প্রতীক) পান ৩৭ হাজার ৫৭৭ ভোট। উপ-নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ শাহগীর আলম রিববার রাতে নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা করে।
এদিকে উপ-নির্বাচন চলাকালে আশুগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি ভোট কেন্দ্র  প্রকাশ্য সিল মারার অভিযোগ উঠে।
নিরুত্তাপ এই ভোট নিয়ে ভোটগ্রহন চলাকালে অনিয়মের অভিযোগ  করছিলেন নির্বাচনে স্বতন্ত্র  প্রার্থী ও সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট জিয়াউল হক মৃধা। তিনি সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করছিলেন আশুগঞ্জ উপজেলার ৭টি কেন্দ্রে  প্রকাশ্য  নৌকা প্রতীক সীল ও জাল ভোট দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। কেন্দ্রে  সর্বহারাকৃত  ভোটার তালিকার সাথে তাদের কাছে সরবহা   করা তালিকার মিলনা থাকায় অনেক ভোটার  ভোট দিতে এসেও ফিরে গেছেন।  তিনি জানান, আশুগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আন্ধি দিল , বড়তল্লা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, টেকরপাড়, যাত্রাপুর নূরানিয়া মাদরাসা, নাওঘাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চর-চারতলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে  প্রকাশ্যে   নৌকা প্রতীক সীল ও জাল ভোট দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তিনি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ শাহগীর আলমকে মৌখিক  ভাবে  অবহিত করেছেন।
উপ-নির্বাচনে অনিয়ম নিয়ে বিভিন্ন  গণমাধ্যম প্রতিবেদনেও প্রকাশিত হয়। অনিয়মের অভিযোগ পেয়ে গত ৭ নভেম্বর  বিকালে ইসি সচিব  মোঃ জাহাংগীর আলম ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২-আসনর উপ নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশিত গত  তারিখে  বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ  দেন।
৭ নভেম্বর  নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন পরিচালনা-২ অধিশাখার উপ-সচিব মোঃ আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিত নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারকে বিভিন্ন  গনমাধ্যম ভোট অনিয়মের খবরের বিষয়ে তদন্ত করে তিন কার্যদিবসরে মধ্যে  তদন্ত  প্রতিবেদন  দিতে বলা হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোঃ শাহগীর আলম অনিয়মের অভিযোগ তদন্তে  জন্য অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ রুহুল আমিনকে নির্দেশ  দেন। আর পুলিশ   অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) মোঃ জয়নাল আবেদীনক নির্দেশ  দেন।
তদন্ত কমিটি গত ৮ ও ৯ নভম্বর আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তন  ভোট কেন্দ্রের  অনিয়মের বিষয় তদন্ত করেন। তাঁরা আনসার, পুলিশ, পুলিং কর্মকর্তা, সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা সাথে কথা বলেন এবং তাদের সাক্ষ্য রেকর্ড করেন। তদন্তের  দ্বিতীয় দিন তদন্ত  কমিটি আশুগঞ্জ উপজেলার বড়তল্লা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তালশহর পশ্চিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও যাত্রাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং নূরানীয়া হাফিজিয়া মাদরাসার ভোট কেন্দ্রে  পরিদর্শন করে তদন্ত  করেন। এরই মধ্য ভোট অনিয়ম নিয়ে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযাগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়।
তবে সংশ্লিষ্ট দুটি কমিটির একটি সূত্র জানা গেছে, উপ-নির্বাচনের আশুগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি কেন্দ্রে  ভোট অনিয়ম পাওয়া গেছে। দ্রুতই  তদন্ত  প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।
তবে তদন্ত কমিশনের   নিজেরা  বলে জানিয়েছেন নির্বাচন প্রতিদ্বদ্বি জিয়াউল হক মৃধা। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবরে দেওয়া অভিযোগ ও সাংবাদিকদের কাছে তিনি  বলেন, বেশ কিছু কেন্দ্র  ভোট ছাপা হয়েছে। আশুগঞ্জর শরীফপুর কেন্দ্রের  ভোট ছাপার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। তাৎক্ষণিক ভাবে নানা অনিয়ম বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের কাছে অভিযোগ করলেও তারা কোন ব্যবস্থা নেন নেই । তাই যারা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে ব্যর্থ হয়েছে তাদেরকে দিয়ে তদন্ত করলে কোনো লাভ হবেনা। তিনি বিচার বিভাগীয় তদন্ত চান। তিনি বলেন, শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চষ্টা করা হলে প্রয়োজনে তিনি উচ্চ আদালতে শরণাপন্ন হবেন।
এ ব্যাপার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন বলেন, আমরা গনমাধ্যম প্রকাশিত খবর ও পরবর্তীত পাওয়া ভিডিওগুলা আমলে এনে তদন্ত করছি।  তদন্ত কাজ শেষ হলে। অল্প সময়ের মধ্য তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।
এ ব্যাপার উপ-নির্বাচন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোঃ শাহগীর আলম রিববার সন্ধ্যা  জানান, তদন্ত কাজ শেষ । কিছুক্ষণের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন এসির কাছে জমা দেওয়া হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করতে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
© All rights reserved © 2018 Channel News
Design & Developed By: Gausul Azam IT